আজ || শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম :
  গোপালপুরে কোটা বিরোধীদের বিপক্ষে মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতিবাদ       গোপালপুর প্রেসক্লাবে মেধাবী শিক্ষার্থীদের সাথে মতবিনিময়       গোপালপুরে শতাধিক নিষিদ্ধ জাল পুড়িয়ে ধ্বংস       গোপালপুরে বর্নাত্যদের জন্য ফ্রি মেডিক্যাল ক্যাম্প       গোপালপুরে বন্যায় পানীয় জলের সংকট, তবে ক্ষতিগ্রস্তরা পাচ্ছে পর্যাপ্ত ত্রাণ       গোপালপুরে ভূয়া নামজারি ও জাল খতিয়ান তৈরি চক্রের দুই সদস্য আটক       টাঙ্গাইল জেলা সমিতি ঢাকা’র নবনির্বাচিত সভাপতি ইব্রাহীম, সম্পাদক হিরণ       গোপালপুরে বৃত্তি প্রদান ও পুরস্কার বিতরণ       গোপালপুরে বৃক্ষরোপন কর্মসূচী পালন       গোপালপুরে ভূমি সেবা সপ্তাহে কুইজ প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ    
 


জাতির উদ্দেশ্যে দেয়া প্রধানমন্ত্রীর ভাষন অন্তঃসারশূন্য ন্যাপ চেয়ারম্যান ও মহাসচিব

মহাজোট সরকারের ৪বছর পূর্তিতে জাতির উদ্দেশ্যে দেয়া প্রধানমন্ত্রীর ভাষনকে অন্তঃসারশূন্য হিসাবে অভিহিত করে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গাণি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া আজ শনিবার এক প্রতিক্রিয়ায় বলেছেন

দেশের জনগন আশা করেছিল প্রধানমন্ত্রী তার ভাষনে জনগনে মৌলিক সমস্যাগুলো সমাধানে সরকার কি করতে চায় তাই বলবে। বলবে পদ্মা সেতুর দুর্নীতি, হলমার্ক কেলেংকারীর বিষয়ে। কিন্তু, তানা করে সরকার দেশের মৌলিক সমস্যাগুলো আড়াল করে শুধু অসত্য তথ্যই জনগনের সামনে তুলে ধরেছেন।

দেশবাসীর প্রত্যাশা ছিল প্রধানমন্ত্রী তার ভাষনে চাল-ডাল-তেলসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রন, দেশের আইনশৃংখলা পরিস্থিতির উন্নতি, বিদ্যুৎ-গ্যাস-পানি সমস্যা, জ্বালানী তেল ও বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি, ইলিয়াস আলী, চৌধুরী আলম, সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুন, বিশ্ব জিৎ, রফিকুল ইসলাম মজুমদার-সহ শত-শত মাণুষের গুম-হত্যার বিচার, বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের গ্রেফতার-নির্যাতন বন্ধ, সীমান্তে বিএসএফের হত্যা বন্ধ, নির্দলীয়-নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকার পুনঃপ্রতিষ্ঠাসহ জনগনে মৌলিক সমস্যাগুলো সমাধানে সরকার কি পরিকল্পনা করেছে তাই জানাবেন। কিন্তু, প্রধানমন্ত্রীর ভাষনে দেশে বিদ্যমান সংকটগুলো সমাধানের কোনো দিকনির্দেশনা না থাকায় জাতি হতাশ হয়েছে।

এটি জাতির জন্য কোনো ভাষন হয়নি, হয়েছে আওয়ামী লীগের দলীয় বক্তব্য। বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মীদের গ্রেফতার ও রিমান্ডের নামে যে নির্যাতন চালানো হচ্ছে, সংবাদমাধ্যম ও সাংবাদিকদের কন্ঠরোধে তার সরকারের অবস্থান এবং কবে তা বন্ধ হবে সেই সম্পর্কে  তার ভাষনে কোন কিছূই নেই।

নেতৃদ্বয় বলেন, ভারতকে করিডোর দেয়া, তাদের এক্সিম ব্যাংকের নিকট থেকে উচ্চ সূদ ও আত্মঘাতি শর্তে যে ঋণ গ্রহন, শেয়রবাজর লুটপাট-হলমার্ক কেলেংককারীর বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর ভাষনে কিছূ পাওয়া যায়নি। ভারতের সাথে অভিন্ন নদীর পানির ন্যায্য হিস্যা, টিপাইমুখ বাঁধ নির্মান, সমুদ্রসীমা নির্ধারণ, সীমান্তে ভারতীয় বিএসএফের হামলা ও নিরিহ মানুষকে হত্যা এসব বিষয়ে কোন কিছূ উপস্থাপন না করে প্রমান করেছেন জাতীয় স্বার্থের বিষয়টি সরকারের নিকট মোটেও গুরুত্বপূর্ণ নয়।

নেতৃদ্বয় আরো বলেন, সরকার নিজেদের ব্যর্থতাকে ঢাকতে বিগত সরকারের উপর চাপিয়ে দেয়ার প্রধানমন্ত্রীর প্রচেষ্টা আবারো মহাজোট সরকারের ব্যর্থতাকে প্রমাণ করেছে। সবমিলিয়ে প্রধানমন্ত্রীর ভাষন জাতিকে হতাশ করেছে।�

মন্তব্য করুন -


Top
error: Content is protected !!