আজ || বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম :
  গোপালপুরে কোটা বিরোধীদের বিপক্ষে মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতিবাদ       গোপালপুর প্রেসক্লাবে মেধাবী শিক্ষার্থীদের সাথে মতবিনিময়       গোপালপুরে শতাধিক নিষিদ্ধ জাল পুড়িয়ে ধ্বংস       গোপালপুরে বর্নাত্যদের জন্য ফ্রি মেডিক্যাল ক্যাম্প       গোপালপুরে বন্যায় পানীয় জলের সংকট, তবে ক্ষতিগ্রস্তরা পাচ্ছে পর্যাপ্ত ত্রাণ       গোপালপুরে ভূয়া নামজারি ও জাল খতিয়ান তৈরি চক্রের দুই সদস্য আটক       টাঙ্গাইল জেলা সমিতি ঢাকা’র নবনির্বাচিত সভাপতি ইব্রাহীম, সম্পাদক হিরণ       গোপালপুরে বৃত্তি প্রদান ও পুরস্কার বিতরণ       গোপালপুরে বৃক্ষরোপন কর্মসূচী পালন       গোপালপুরে ভূমি সেবা সপ্তাহে কুইজ প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ    
 


চবিতে ফের সক্রিয় হিযবুত তাহরির

আসন্ন ভর্তি পরীক্ষাকে সামনে রেখে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে আবারও সক্রিয় হয়ে উঠেছে নিষিদ্ধঘোষিত জঙ্গি সংগঠন হিযবুত তাহরির। তারা গত এক সপ্তাহ ধরে পুরোদমে ক্যাম্পাসে কার্যক্রম চালাচ্ছে। এর অংশ হিসেবে শাটলট্রেনসহ বিভিন্ন জায়গায় পোস্টারিং করেছে তারা।

সরেজমিন দেখা গেছে, দুটি শাটল ট্রেনের প্রায় প্রত্যেক বগিতে হিযবুত তাহরিরের পোস্টার। এছাড়াও রেললাইনের দু’পাশ, ক্যান্টনমেন্টের নতুনপাড়া, চৌধুরীহাট এবং ফতেয়াবাদ রেলওয়ে স্টেশনসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ এলাকায়ও পোস্টার সাঁটানো হয়েছে।  লাল ও কালো রঙের এসব পোস্টারে বিভিন্ন প্রতিক্রিয়াশীল লেখার পাশাপাশি খেলাফত প্রতিষ্ঠার গণ-আন্দোলনে সবাইকে শামিল হওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে। জালিম আখ্যা দিয়ে সরকারকে হঠানোর ডাকও  দেওয়া হয়েছে। এছাড়া সংগঠনের বিভিন্ন উগ্রপন্থী মতাদর্শ তুলে ধরা হয়েছে তাতে।

নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ে আসন্ন ভর্তি পরীক্ষা উপলক্ষে নিজেদের উপস্থিতি জানান দিতে এই প্রচারণা। বিশ্ববিদ্যালয়ে নতুন ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীরাই থাকে হিযবুত তাহরিরের মূল টার্গেট। ধর্মের দোহাইসহ বিভিন্ন কৌশলে চলে তাদের সদস্য সংগ্রহ। আর তাদের সেই পাতা ফাঁদে পা দেয়

বিশ্ববিদ্যালয়ে নতুন ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীরা।

২০০৫ সাল থেকে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে হিযবুত তাহরির প্রকাশ্যে কার্যক্রম শুরু করে। তবে জন-নিরাপত্তার জন্য হুমকি ও জঙ্গি মদদের অভিযোগে সরকার ২০০৯ সালের ২২ অক্টোবর সংগঠনটির কার্যক্রম নিষিদ্ধ করলে লোকচক্ষুর অন্তরালে চলে যায় তারা। এরপর বেশ কিছুদিন বিশ্ববিদ্যালয়ে ধীরে চলো নীতিতে কার্যক্রম চালাতে থাকে তারা।

এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ে আসন্ন ভর্তি পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে ক্যাম্পাসে যাতে মাথাচড়া দিয়ে উঠতে না পারে সেদিকে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নজর দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সচেতন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

এ প্রসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর সিরাজ উদদৌল্লাহ বলেন, এরকম কার্যক্রমের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগ পাওয়া গেলে তাদেরকে যথোপযুক্ত শাস্তির আওতায় আনা হবে।

বিশ্ববিদ্যালয় পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ রফিকুল ইসলাম বলেন, এই খবরটি আমাদের কাছে এসেছে। এরকম কার্যকমের সাথে জড়িতদের ধরতে গোয়েন্দা তৎপরতা বাড়ানো হয়েছে।

মন্তব্য করুন -


Top
error: Content is protected !!