আজ || রবিবার, ২৩ Jun ২০২৪
শিরোনাম :
  গোপালপুরে বৃত্তি প্রদান ও পুরস্কার বিতরণ       গোপালপুরে বৃক্ষরোপন কর্মসূচী পালন       গোপালপুরে ভূমি সেবা সপ্তাহে কুইজ প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ       হেমনগরে বর্ধিত সভায় দোয়াত কলম প্রতীকের কর্মী-সমর্থকদের ঢল       রবীন্দ্র সৃজনকলা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ডিজাইনকৃত পোশাক নিয়ে ফ্যাশন প্রদ‍‍র্শনী       গোপালপুরে দারোগার মাথা ফাটানোর ঘটনায় ১৬ জনকে জেলহাজতে প্রেরণ       গোপালপুরে দারোগার মাথা ফাটিয়েছে সন্ত্রাসীরা; গ্রেফতার ১০       গোপালপুরে প্রধানমন্ত্রীর ফেয়ার প্রাইজের চাল কালোবাজারে বিক্রির অভিযোগ       গোপালপুরে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মোমেনের পদত্যাগ       উত্তর টাঙ্গাইল নূরানী মাদরাসার বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান    
 


শাহরুখ খান কে নিয়ে ভারত, পাকিস্তানে তোলপাড়: মুখ খুললেন শাহরুখ

undefined

যারা আমাকে অযাচিত উপদেশ দিয়েছেন তাদের সবাইকে বলতে আমি চাই যে আমরা ভারতে নিরাপদে ও সুখে রয়েছি। আমাদের চমৎকার গণতান্ত্রিক, মুক্ত ও ধর্মনিরপেক্ষ জীবনপদ্ধতি রয়েছে।

বলিউড বাদশা শাহরুখ খানের মন্তব্য এটি।  সীমান্ত উত্তেজনার রেশ কাটতে না কাটতে শাহরুখের একটি নিবন্ধের সূত্র ধরে ভারত ও পাকিস্তানের তর্ক-যুদ্ধ শুরু হয়। এ পরিস্থিতিতে অবশেষে মুখ খুললেন বলিউড বাদশা। সংবাদ মাধ্যমে একটি বিবৃতিও দিয়েছেন কিং খান।

গত সপ্তাহে ভারতের একটি সাময়িকীতে একজন খান হয়ে শিরোনামে একটি নিবন্ধ লিখেন শাহরুখ খান। ওই নিবন্ধে ভারতে মুসলমান হিসেবে কেমন আচরণ করা হয় তার সঙ্গে তা তুলে ধরেন তিনি। ৯/১১ পরবর্তী তিক্ত অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরেছেন শাহরুখ।

আউটলুক টার্নিং পয়েন্টের নিবন্ধে ৪৭ বছর বয়সী শাহরুখ লিখেন যদিও আমি একজন ভারতীয় মাঝে মাঝে আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলা হয় নিজের দেশের চেয়ে প্রতিবেশি দেশের প্রতি আমি অনুগত।

বিবৃতিতে শাহরুখ শাহরুখ উল্লেখ করেছেন, ওই নিবন্ধটি তিনি নিজেই লিখেছেন। আসলে কিছু ধর্মান্ধ ও সংকীর্ণমনা লোকের বিষয়টি তুলে ধরতে তিনি এসব কথা বলেছেন।

কেন এসব বিতর্কিত আলোচনা হচ্ছে-তা পরিষ্কার করেছেন শাহরুখ খান। তিনি বলেছেন, প্রথমত এর কারণ হচ্ছে.. আমি মনে করি কিছু ব্যক্তি ওইটি (নিবন্ধ) পুরো না পড়েই মন্তব্য করছেন। অনেকে না পড়েই মন্তব্য করছেন। তাই আমি সবাইকে অনুরোধ করব আগে এটি পড়ুন।

পুরো নিবন্ধটি পড়ার পরেই শাহরুখ প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে ভারতে নিরাপদ না অনিরাপদ বোধ করছেন তা বোঝা যাবে বলে উল্লেখ করেছেন কিং খান।

বিবৃতিতে শাহরুখ উল্লেখ করেছেন, মানুষের জীবন তিনটি পরিচয়ে বাধা।  তিনটির মধ্যে দুটো মানুষ জন্ম এবং বাধাবিহীন ভালোবাসা ও গ্রহণযোগ্যতার কারণে ভাগ্যবশত পেয়ে থাকেন।

শাহরুখ জানান, একজন মানুষের প্রথম পরিচয় নির্ধারিত হয় কোথায় তিনি একজন জন্মগ্রহণ করে। মাতৃভূমিই মানুষের পরিচয় তুলে ধরে।

এমন মন্তব্য করে নিজে ভারতে জন্ম নেওয়া গর্ববোধ করে তিনি বলেন, আমার মতো সবাই ভারতীয় হতে পেরে গর্বিত।

তার মতে, দ্বিতীয় পরিচয় গড়ে ওঠে বাবা-মার দেওয়া পারিবারিক নাম এবং পরিবারে বেড়ে ওঠ‍র মাধ্যমে।

এ পরিচয়ের সূত্র ধরে কিং খান বলেন,  এখানের অন্যান্যদের মতো আমার নাম খান। এখানের সবার মতো আমি আমার বাবা-মার জন্য গর্বিত। আমি তাদেরকে নিশর্তভাবে তাদেরকে ভালোবাসি।

তৃতীয় পরিচয় নির্ধারিত হয় মানুষের পেশা দিয়ে বলে মন্তব্য শাহরুখের। তার বক্তব্য, ভাগ্যের খেলায় আমি একজন তারকা..শিল্প ও গণমাধ্যমে  একজন পরিচিত মুখ। তৃতীয়টি অর্থাৎ পরিচিত মুখ হওয়ার কারণে আমাকে যেকোনো প্রশ্নে মুখ খুলতে হয়, ভালো-খারাপ বিশেষণ জুটে অথবা আমাকে বিতর্কের বস্তুতে পরিণত করে । আর এ সবকিছুই গ্রহণ করি কেননা এই জীবন আমি বেছে নিয়েছি।

শাহরুখের ওই নিবন্ধের প্রেক্ষিতে পাকিস্তানের জামায়াত-উদ-দাওয়ার প্রধান ও মুম্বাই হামলার প্রধান ষড়যন্ত্রকারী হিসেবে অভিযুক্ত হাফিজ সাঈদ শাহরুখকে পাকিস্তানে যাওয়ার আমন্ত্রণ জানান। তিনি বলেন, শাহরুখ পাকিস্তানে আসলে তাকে সাদরে গ্রহন করা হবে।

প্রথম ভারতীয় অভিনেতা হিসেবে ফোর্বসের প্রচ্ছদে স্থান পেতে যাওয়া শাহরুখ। আউটলুক টার্নিং পয়েন্টের নিবন্ধে অভিযোগের সুরে লিখেছেন, অনেক সময় আমাকে দেশ থেকে বিতাড়ন করতে জনবিক্ষোভে উৎসাহ দেয় রাজনৈতিক নেতারা। তাদের দাবি করা আমার প্রকৃত জন্মস্থানে ফিরে যেতে বলেন তারা।

এরপর পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রেহমান মালিক বলেন, সে (শাহরখ) জন্মগতভাবে একজন ভারতীয় এবং সে ভারতে থাকতে চায়। কিন্তু আমি ভারতের সরকারকে অনুরোধ করব, দয়া করে তাকে নিরাপত্তা দিন।

মালিকের এ আবেদনের জবাবে মঙ্গলবার ভারতের স্বরাষ্ট্র সচিব বলেন, আমাদের নিজেদের নাগরিকদের নিরাপত্তা দেওয়ার ব্যাপারে আমরা পুরোপুরি সমর্থ..তাকে (মালিক) নিজের নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তিত হতে বলুন।

ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে শাহরুখ খানের ১৯৬৫ সালের ২ নভেম্বর জন্ম গ্রহণ করেন। ১৯৮০-এর দশকের শেষের দিকে বেশ কিছু টেলিভিশন ধারাবাহিকে অভিনয়ের মাধ্যমে অভিনয় জীবন শুরু করেন। ১৯৯২ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত দিওয়ানা চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তিনি চলচ্চিত্র জগতে প্রবেশ করেন। এরপর তিনি বাণিজ্যিকভাবে সফল অসংখ্য চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। এ মুহূর্তে তিনি খ্যাতির চূড়ায় রয়েছেন।

শাহরুখ খান ১৩ বার ফিল্মফেয়ার পুরস্কার লাভ করেন। এর মধ্যে আটটিই সেরা অভিনেতার পুরস্কার। তিনি বলিউডের অন্যতম সফল অভিনেতা। হিন্দি চলচ্চিত্রে অসাধারণ অবদানের জন্য ২০০৫ সালে ভারত সরকার শাহরুখ খানকে পদ্মশ্রী পুরস্কারে ভূষিত করে।

মন্তব্য করুন -


Top
error: Content is protected !!