আজ || সোমবার, ২০ মে ২০২৪
শিরোনাম :
  রবীন্দ্র সৃজনকলা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ডিজাইনকৃত পোশাক নিয়ে ফ্যাশন প্রদ‍‍র্শনী       গোপালপুরে দারোগার মাথা ফাটানোর ঘটনায় ১৬ জনকে জেলহাজতে প্রেরণ       গোপালপুরে দারোগার মাথা ফাটিয়েছে সন্ত্রাসীরা; গ্রেফতার ১০       গোপালপুরে প্রধানমন্ত্রীর ফেয়ার প্রাইজের চাল কালোবাজারে বিক্রির অভিযোগ       গোপালপুরে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মোমেনের পদত্যাগ       উত্তর টাঙ্গাইল নূরানী মাদরাসার বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান       গোপালপুরে জাতীয় দুর্যোগ প্রস্তুতি দিবস উদযাপন       গোপালপুরে নানা আয়োজনে আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিত       গোপালপুরে পৃথক সড়ক দূর্ঘটনায় শিশু ও নারী নিহত       গোপালপুরে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে নগদ অর্থ প্রদান    
 


বৃষ্টি ও তাপমাত্রার উপর নির্ভর করে ডেঙ্গুর প্রকোপ

undefined

ব্রাজিলে গবেষকরা এবার রীতিমতো হিসেবনিকেশ করে দেখেছেন যে, বৃষ্টির পরিমাণ আর গড় তাপমাত্রা বাড়লে সেই সঙ্গে মশার প্রাদুর্ভাব ও ডেঙ্গু জ্বরের প্রকোপ বাড়ে৷ সত্যিই কি তাই?

ব্রাজিলের রিও ডি জানিরো শহরের ‘ন্যাশনাল স্কুল অফ পাবলিক হেল্থ’ শহরটির আবহাওয়াগত বিভিন্ন উপাদান ও ডেঙ্গু জ্বরের ঘটনা বাড়া কি কমার সম্পর্কটা বৈজ্ঞানিক উপায়ে নির্ধারণ করার চেষ্টা করেছে৷ এবং সেটা এক-দুই বছর ধরে নয়, বরং ২০০১ থেকে ২০০৯, অর্থাৎ ন’বছর ধরে৷

প্রতিমাসে কতগুলো ডেঙ্গু জ্বরের ঘটনা ঘটছে, সে পরিসংখ্যান পাওয়া গেছে স্বাস্থ্য দপ্তর থেকে৷ রিও’র দিন ও রাত্রির তাপমাত্রার খতিয়ান দিয়েছে জাতীয় মহাকাশ গবেষণা প্রতিষ্ঠান৷ আর বৃষ্টির পরিমাণ জানিয়েছে রিও’র মিউনিসিপাল কর্পোরেশন৷

এই তিন মিলে খতিয়ে দেখে গবেষকরা যে খুব নতুন কোনো তথ্য আবিষ্কার করেছেন, এমন নয় – সে কথা তাঁরা নিজেরাই বলছেন৷ ডেঙ্গু জ্বর ছড়ায় এডিস নামের এক মশা, যাদের দরকার বৃষ্টি কিংবা সেচ থেকে পরিষ্কার জল৷

ওদিকে তাপমাত্রা বেশি থাকলে তাদের ডিম ফুটতে ও ডিম থেকে বেরনো শূককীটদের তাড়াতাড়ি বাড়তে সুবিধে হয়৷ রিও দক্ষিণ গোলার্ধে৷ সেখানে গরমকাল হল ডিসেম্বর থেকে নার্চ এবং সেই সময়টাতেই সবচেয়ে বেশি বৃষ্টি হয়৷

গবেষকরা দেখেছেন, কোনো মাসে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা এক ডিগ্রি বাড়লেই, পরের মাসে রিও’য় ডেঙ্গুর ঘটনা ৪৫ শতাংশ বেড়ে যায়৷ আর বৃষ্টিপাত ১০ মিলিমিটার বাড়লে পরের মাসে ডেঙ্গুর ঘটনা বাড়ে ছয় শতাংশ৷ এটাই হল এই গবেষণা থেকে আবিষ্কৃত সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য: দেখা গেছে, বৃষ্টিপাতের চেয়ে তাপমাত্রা, বিশেষ করে সর্বনিম্ন তাপমাত্রার উপরেই ডেঙ্গুর বাড়া-কমা নির্ভর করে৷

সব মিলিয়ে ডেঙ্গু ছড়ানোর সম্ভাবনা বাড়ে যখন দিন ও রাতের গড় তাপমাত্রা ২৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের বেশি হয়৷ এবং ডেঙ্গু প্রতিরোধের পন্থা সম্পর্কেও গবেষকদের নতুন করে কিছু বলার নেই: মশারা বংশবৃদ্ধি করতে পারে, এমন বদ্ধজলের এলাকাগুলি পরিষ্কার করা দরকার৷ এক্ষেত্রে ফুলের টবে জমা জল, এমনকি পুরনো প্লাস্টিকের বোতলে জমা জলকেও বাদ দিচ্ছেন না তারা৷ চৌবাচ্চার জল ঢেকে রাখাও একটা পন্থা৷

মন্তব্য করুন -


Top
error: Content is protected !!