আজ || বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম :
  গোপালপুরে কোটা বিরোধীদের বিপক্ষে মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতিবাদ       গোপালপুর প্রেসক্লাবে মেধাবী শিক্ষার্থীদের সাথে মতবিনিময়       গোপালপুরে শতাধিক নিষিদ্ধ জাল পুড়িয়ে ধ্বংস       গোপালপুরে বর্নাত্যদের জন্য ফ্রি মেডিক্যাল ক্যাম্প       গোপালপুরে বন্যায় পানীয় জলের সংকট, তবে ক্ষতিগ্রস্তরা পাচ্ছে পর্যাপ্ত ত্রাণ       গোপালপুরে ভূয়া নামজারি ও জাল খতিয়ান তৈরি চক্রের দুই সদস্য আটক       টাঙ্গাইল জেলা সমিতি ঢাকা’র নবনির্বাচিত সভাপতি ইব্রাহীম, সম্পাদক হিরণ       গোপালপুরে বৃত্তি প্রদান ও পুরস্কার বিতরণ       গোপালপুরে বৃক্ষরোপন কর্মসূচী পালন       গোপালপুরে ভূমি সেবা সপ্তাহে কুইজ প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ    
 


দুপুরে বিশ্ব শান্তি কামনায় মোনাজাতের মধ্যদিয়ে শেষ হবে তিন দিনের বিশ্ব ইজতেমা

বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে রোববার ভোর থেকে টঙ্গীর তুরাগ তীরের ইজতেমায় উপস্থিত হতে জনতার ঢল নেমেছে।

দুপুরে বিশ্ব শান্তি কামনায় মোনাজাতের মধ্যদিয়ে শেষ হবে তিন দিনের বিশ্ব ইজতেমা।

এখন চলছে হেদায়তি বয়ান। বয়ান শেষে দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করবেন তাবলীগের মরুব্বি বাংলাদেশের মাওলানা মো. রবিউল ইসলাম।

টঙ্গীর পথে শনিবার মধ্যরাত থেকেই ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে মোটর গাড়ি চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। ফলে মোনাজাতে অংশ নিতে মুসল্লিরা পায়ে হেঁটে ইজতেমা ময়দানে যাচ্ছেন।

সকাল সাড়ে ৯ টার আগেই ইজতেমা মাঠ কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে গেছে। এখন মাঠের আশপাশের রাস্তা, অলি-গলিতে অবস্থান নিচ্ছেন মুসল্লিরা।

ইজতেমাস্থলে পৌঁছাতে না পেরে খবরের কাগজ, পাটি, সিমেন্টের বস্তা ও পলিথিন বিছিয়ে মানুষ সড়কে অবস্থান নিয়েছেন। এছাড়া আশপাশের ভবনের ছাদেও অনেকের দেখা গেছে।

আখেরি মোনাজাত উপলক্ষে রোববার এ এলাকার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, কলকারখানাসহ বিভিন্ন অফিস-আদালতে ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।

এরআগে গত ১১ থেকে ১৩ জানুয়ারি চলে তিন দিনব্যাপী বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব।

তাবলিগ জামাতের উদ্যোগে প্রতি বছর এ ইজতেমা অনুষ্ঠিত হয় টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে। ১৬০ একর এলাকাজুড়ে বিস্তৃত ইজতেমা মাঠে বিশ্বের প্রায় সব মুসলিম দেশ থেকেই তাবলিগ জামাতের অনুসারী ধর্মপ্রাণ মুসলমান অংশ নেন।

তারা এখানে তাবলিগ জামাতের শীর্ষ আলেমদের বয়ান শোনেন এবং ইসলামের দাওয়াতি কাজ বিশ্বব্যাপী পৌঁছে দেয়ার জন্য জামাতবদ্ধ হয়ে এখান থেকেই দ্বীনের দাওয়াতি কাজে বেরিয়ে যান। ইউরোপ, আমেরিকা, মধ্যপ্রাচ্যসহ বিভিন্ন দেশের তাবলিগ অনুসারীরা মিলিত হন এ ইজতেমায়

মন্তব্য করুন -


Top
error: Content is protected !!