আজ || বুধবার, ২৯ মে ২০২৪
শিরোনাম :
  হেমনগরে বর্ধিত সভায় দোয়াত কলম প্রতীকের কর্মী-সমর্থকদের ঢল       রবীন্দ্র সৃজনকলা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ডিজাইনকৃত পোশাক নিয়ে ফ্যাশন প্রদ‍‍র্শনী       গোপালপুরে দারোগার মাথা ফাটানোর ঘটনায় ১৬ জনকে জেলহাজতে প্রেরণ       গোপালপুরে দারোগার মাথা ফাটিয়েছে সন্ত্রাসীরা; গ্রেফতার ১০       গোপালপুরে প্রধানমন্ত্রীর ফেয়ার প্রাইজের চাল কালোবাজারে বিক্রির অভিযোগ       গোপালপুরে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মোমেনের পদত্যাগ       উত্তর টাঙ্গাইল নূরানী মাদরাসার বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান       গোপালপুরে জাতীয় দুর্যোগ প্রস্তুতি দিবস উদযাপন       গোপালপুরে নানা আয়োজনে আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিত       গোপালপুরে পৃথক সড়ক দূর্ঘটনায় শিশু ও নারী নিহত    
 


এখন ‘স্মার্ট ফোন’-এর যুগ, সময় ডিজিটাল হওয়ার

অনেকে বলবেন, এখন ‘স্মার্ট ফোন’-এর যুগ, সময় ডিজিটাল হওয়ার৷ দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলিতে সে কথা এখনো খাটলেও, যুক্তরাষ্ট্র কিন্তু অচিরেই স্মার্ট ফোনের এই যুগ পার করে আরো ‘স্মার্ট’ হওয়ার পথে! ‘মোবাইল ফোন’ – অদতে এ যন্ত্রটির প্রধান কাজ দুই ব্যক্তির মধ্যে কথোপকথন এবং ক্ষুদে বার্তা বা এসএমএস আদান-প্রদান করা৷ অর্থাৎ, মানুষের সঙ্গে মানুষের যোগাযোগের একটা মাধ্যম এটি৷

কি? সেল ফোনের এহেন ব্যাখা শুনতে একটু সেকেলে লাগছে, তাই না? কথাটা কিন্তু ঠিক৷ সেকেলে তো লাগতেই পারে৷ কারণ, নিত্যনতুন ‘স্মার্ট ফোন’-এর দৌলতে মোবাইল তো আর আজকাল শুধু কথোপকথন আর বার্তা বিনিময়ের মাধ্যম নয়!

অথচ এই তো, ক’দিন আগেও নিজস্ব একটা স্মার্ট ফোনের জন্য কেমন উতলা হয়ে ছিল বিশ্ববাসী৷ কেউ কেউ অত্যাধুনিক এই প্রযুক্তিটির আনন্দ নিয়ে তৃপ্ত হওয়ার জন্য, কেউ আবার শুধুমাত্র পণ্যটি নিজ পকেটে রাখার জন্য৷

আর এখন? শিশু, বৃদ্ধ, বনিতা – যে কোনো বয়সি মানুষের হাতেই যে একটি করে সেট৷ তবে এক্কেবারে নতুন খবর হলো, ‘কোলোনিয়ালিজম’-এর পর যেমন ‘পোস্ট-কোলোনিয়ালিজম’ এসেছিল, তেমনই এবার স্মার্ট ফোনের যুগ শেষ হয়ে নাকি ‘পোস্ট-স্মার্টফোন’-এর যুগ আসতে চলেছে৷ যুক্তরাষ্ট্রে সাম্প্রতিক একটি সমীক্ষা কিন্তু তেমনটাই বলছে৷

যুক্তরাষ্ট্রের লাস ভেগাস-এ মঙ্গলবার শুরু হওয়া ‘আন্তর্জাতিক কনসিউমার ইলেক্ট্রনিক শো’-তে মেলা কমিটির প্রধান শন দুব্রাভাচ জানান, ‘‘আসলে স্মার্ট ফোন এখন আর কথোপকথনের মাধ্যম নয়, এটা মানুষের ‘ডিজিটাল লাইফ’ বা ডিজিটাল জীবনের অঙ্গাঙ্গি অংশ হয়ে উঠেছে৷ দেখা গেছে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এখন যাঁরা স্মার্ট ফোন ব্যবহার করেন, তাঁদের অন্তত ৬৫ শতাংশ এটা ব্যবহার করেন বিনোদন অথবা অন্যান্য কাজের জন্য, যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে নয়৷”

বলা বাহুল্য, ইন্টারনেট ব্যবহারসহ নানা ধরনের বিনোদনের সুযোগ-সুবিধা থাকে স্মার্ট ফোনে৷ নানা রকমের ‘অ্যাপ্লিকেশন’ বিনা পয়সায় ‘ডাউনলোড’ করে কত কাজেই না আসে এই ফোনগুলো৷ পথ চিনতে, ভাষা শিখতে, খেলা করতে, খবর পড়তে, সামাজিক যোগাযোগের সাইটগুলি – যেমন ফেসবুক, টুইটার যখন-তখন ‘আপডেট’ করতে, এমনকি রান্না করতে চাইলেও কোনো একটি অ্যাপ্লিকেশন টিপলেই হলো৷ সঙ্গে সঙ্গেই সমস্ত তথ্য হাজির৷ শন দুব্রাভাচের কথায়, ‘‘যুক্তরাষ্ট্রে তো রক্তচাপ মাপার যন্ত্র হিসেবে, হোটেল বা বিমানের টিকিট ‘বুকিং’ করতেও মানুষ ঐ স্মার্ট ফোনকেই বেছে নিচ্ছে৷”

এছাড়া, আর একটা মজার জিনিস হলো, আজকাল স্মার্ট ফোনগুলি তৈরিই হচ্ছে অত্যন্ত উন্নতমাত্রার ‘স্ক্রিন’ সহ৷ যাতে করে ফোনের মাধ্যমেই ভিডিও, টেলিভিশন এমনকি সেনেমাও দেখা যায়৷ ঠিক ‘ট্যাবলেট’ বা কম্পিউটারের মতো৷ এই যেমন হালের ‘স্যামসুং গ্যালাক্সি ৩ লাইট’ বা ‘আইফোন ৫’-এও রয়েছে ‘রেটিনা ডিসপ্লে’ বা ‘হাই ডেফিনেশন স্ক্রিন’৷

[বাংলাদেশটাইমস.নেট /টাইমস ডেস্ক]

 

মন্তব্য করুন -


Top
error: Content is protected !!