আজ || শুক্রবার, ১৪ Jun ২০২৪
শিরোনাম :
  গোপালপুরে ভূমি সেবা সপ্তাহে কুইজ প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ       হেমনগরে বর্ধিত সভায় দোয়াত কলম প্রতীকের কর্মী-সমর্থকদের ঢল       রবীন্দ্র সৃজনকলা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ডিজাইনকৃত পোশাক নিয়ে ফ্যাশন প্রদ‍‍র্শনী       গোপালপুরে দারোগার মাথা ফাটানোর ঘটনায় ১৬ জনকে জেলহাজতে প্রেরণ       গোপালপুরে দারোগার মাথা ফাটিয়েছে সন্ত্রাসীরা; গ্রেফতার ১০       গোপালপুরে প্রধানমন্ত্রীর ফেয়ার প্রাইজের চাল কালোবাজারে বিক্রির অভিযোগ       গোপালপুরে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মোমেনের পদত্যাগ       উত্তর টাঙ্গাইল নূরানী মাদরাসার বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান       গোপালপুরে জাতীয় দুর্যোগ প্রস্তুতি দিবস উদযাপন       গোপালপুরে নানা আয়োজনে আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিত    
 


রাশেদ খান মেননের নেতৃত্বে আসছে ১০ দলীয় জোট

আগামী দুই একদিনের মধ্যে মহাজোটের অন্যতম শরিক বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন ও পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির সভাপতি জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় সন্তু লারমার নেতৃত্বে ১০ প্রগতিশীল দল নামে নতুন একটি রাজনৈতিক জোটের আত্মপ্রকাশ হতে যাচ্ছে। ৯ জানুয়ারী বুধবার এই জোটের ব্যানারে ঢাকাসহ সারাদেশে বিক্ষোভ সমাবেশেরও কর্মসূচি রয়েছে।

এদিকে সোমবার এক বিবৃতিতে ১০ দলের নেতারা বলেছেন, সরকার আগাম কোনো আলাপ-আলোচনা না করে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের পরামর্শে অযৌক্তিকভাবে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি করেছে। বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেন ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি কমরেড রাশেদ খান মেনন এমপি ও সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান মল্লিক, গণঐক্যের আহ্বায়ক পঙ্কজ ভট্টাচার্য, গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক নুরুর রহমান সেলিম, সাম্যবাদী দলের পলিট ব্যুরোর সদস্য আবু হামিদ শাহাবুদ্দিন, গণআজাদী লীগের সভাপতি হাজী আব্দুস সামাদ, বাসদের (বিএসডি) আহ্বায়ক রেজাউর রশিদ খান, জনসংহতির সাংগঠনিক সম্পাদক মঙ্গল চাকমা, কমিউনিস্ট কেন্দ্রের যুগ্ম আহ্বায়ক ডা. অসিত রায়, গণতান্ত্রিক মজদুর পার্টির সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন ও ন্যাপের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন।

তারা বলেন, এই মূল্য বৃদ্ধির ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হবে আমাদের কৃষি। ইরি-বোরো আবাদে জ্বালানি মূল্যবৃদ্ধি কৃষকের উৎপাদনশীলতায় নেতিবাচক প্রভাব পড়বে। জিনিসপত্রের দাম, পরিবহন ভাড়া এ কারণে পাল্লা দিয়ে বাড়বে। স্বল্প আয়ের মানুষ ও মধ্যবিত্ত জনগণের জীবন হয়ে উঠবে দুর্বিষহ।যৌথ বিবৃতিতে ১০ দলের নেতৃবৃন্দ সরকারের এই ধরনের জনস্বার্থ বিরোধী কার্যক্রম বন্ধ এবং অবিলম্বে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি প্রত্যাহারের আহ্বান জানান।একই সাথে নেতৃবৃন্দ বিদ্যুতের মূল্য আগামীতে না বাড়ানোর জন্য সরকারের প্রতি দাবি জানান। অন্যথায় যে কোনো ধরনের অনাকাঙিক্ষত পরিস্থিতির জন্য সরকারকে দায়ী থাকতে হবে বলে হুঁশিয়ারি দেন ১০ দলের নেতারা।

ওয়ার্কার্স পার্টি ও পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি ছাড়াও এ জোটে গণঐক্য, গণতন্ত্রী পার্টি, সাম্যবাদী দল, গণআজাদী লীগ, বাসদের (বিএসডি) কমিউনিস্ট কেন্দ্র, গণতান্ত্রিক মজদুর পার্টি ও ন্যাপ থাকছে। এর মধ্যে জনসংহতি সমিতি, বাসদ, বিএসডি ও গণঐক্য ছাড়া বাকি সব দল আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪দলীয় জোটের শরিক।

এ ব্যাপারে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির গণমাধ্যম বিভাগের প্রধান রফিকুল ইসলাম সুজন জানান, ১০দলীয় জোটের পরিধি আরো বাড়তে পারে। তাই এখনই এ জোটের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসছে না। তবে আপাতত ১০ প্রগতিশীল দলের ব্যানারে আমরা জনস্বার্থে সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন-সংগ্রাম জোরদার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

আগামী ৯ জানুয়ারি আমরা প্রথমবারের মতো এই জোটের ব্যানারে কর্মসূচি দিয়েছি। ওইদিন ঢাকাসহ সারাদেশে জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ হবে।

মন্তব্য করুন -


Top
error: Content is protected !!