আজ || বুধবার, ২৯ মে ২০২৪
শিরোনাম :
  হেমনগরে বর্ধিত সভায় দোয়াত কলম প্রতীকের কর্মী-সমর্থকদের ঢল       রবীন্দ্র সৃজনকলা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ডিজাইনকৃত পোশাক নিয়ে ফ্যাশন প্রদ‍‍র্শনী       গোপালপুরে দারোগার মাথা ফাটানোর ঘটনায় ১৬ জনকে জেলহাজতে প্রেরণ       গোপালপুরে দারোগার মাথা ফাটিয়েছে সন্ত্রাসীরা; গ্রেফতার ১০       গোপালপুরে প্রধানমন্ত্রীর ফেয়ার প্রাইজের চাল কালোবাজারে বিক্রির অভিযোগ       গোপালপুরে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মোমেনের পদত্যাগ       উত্তর টাঙ্গাইল নূরানী মাদরাসার বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান       গোপালপুরে জাতীয় দুর্যোগ প্রস্তুতি দিবস উদযাপন       গোপালপুরে নানা আয়োজনে আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিত       গোপালপুরে পৃথক সড়ক দূর্ঘটনায় শিশু ও নারী নিহত    
 


প্রধানমন্ত্রীকে তারেক রহমানের লিগ্যাল নোটিশ

বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের অবৈধ সম্পদ ও মানি লন্ডারিং নিয়ে ১ ডিসেম্বর মৌলভীবাজারের সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবিতে লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে। রেজিস্টার ডাক ও সুন্দরবন কুরিয়ারের মাধ্যমে

তারেক রহমানের পক্ষে আইনজীবী মাহবুব উদ্দিন খোকন বুধবার দুপুরে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ঠিকানায় এ নোটিশ পাঠান।

আইনজীবী নোটিশের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন, নোটিশ পাওয়ার ২৮ দিনের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীকে ঐ বক্তব্য প্রত্যাহার করতে হবে ও প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে। তা না হলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

লিগ্যাল নোটিশে বলা হয়, তারেক রহমানের গ্রহনযোগ্যতা নষ্ট করতে এবং সুনাম ক্ষুণ্ন করতে উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে অসত্য ভুল ও ভিত্তিহীন বক্তব্য দেওয়া হয়েছে। তারেক রহমান মানি লন্ডারিংয়ের সাথে জড়িত নয়। তার কোনো অর্থ দেশে ফেরত আসেনি। আমেরিকায় তার বিরুদ্ধে কোনো মামলাও হয়নি। লন্ডনে তার কোনো বাড়ি, রেস্টুরেন্ট নেই। চিকিৎসার জন্য তিনি সেখানে অবস্থান করছেন এবং খুব সাধারণ জীবনযাপন করছেন। বিদেশে তার বা তার কোনো আত্মীয়ের কোনো সম্পত্তি নেই।

লিগ্যাল নোটিশে আরও বলা হয়, তারেক রহমান দেশের একজন প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী। তিনি সবসময় সবধরনের নিয়ম-কানুন অনুসরণ করেছেন। সৎ ও স্বচ্ছভাবে নিয়মিত ট্যাক্স দেন। কোথাও তার কোনো গোপন সম্পত্তি নেই। প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য তার গ্রহনযোগ্যতাকে ভীষনভাবে আহত করেছে। তাকে ঐ বক্তব্যের মাধ্যমে ঘৃণার পাত্র হিসেবে উপস্থাপন করা হয়েছে। রাষ্ট্রপ্রধান হিসেবে জনগণের উদ্দেশ্যে বক্তব্য দেওয়ার ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী আরও দায়িত্বশীল হবেন।

গত ১ ডিসেম্বর মৌলভীবাজার সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘খালেদা জিয়া বলেছেন তার ছেলেরা নাকি সৎ জীবনযাপন করে। যেদিন তিনি এ কথা বলেছেন সেদিনই তার ছেলেদের মানি লন্ডারিংয়ের টাকা দেশে ফেরত এসেছে। এ মামলা আওয়ামী লীগ সরকার করেনি। মামলা হয়েছে আমেরিকার কোর্টে। এ এলাকায় অনেকেই প্রবাসে থাকেন। আপনারা একটু খোঁজ নিয়ে দেখেন তার ছেলে লন্ডনে কোন এলাকায় থাকে। কী গাড়ি ব্যবহার করে। কী রকম বিলাসবহুল জীবনযাপন করছে। কোথা থেকে টাকা আসে। দুর্নীতি ছাড়া এত টাকা কোথা থেকে আসবে। তার ছেলেরা বিদেশের রেস্টুরেন্ট করেছে। বাড়ি করেছে দামি গাড়ি কিনেছে। ভাঙা সুটকেস থেকে কি এসব টাকা বেড়েছে? বিএনপির ক্ষমতায় থাকাকালে মানি লন্ডারিং করে এসব টাকা পাচার করে। এখন লন্ডনে বিলাসবহুল জীবনযাপন করছে তারেক।‘

মন্তব্য করুন -


Top
error: Content is protected !!