আজ || বুধবার, ২২ মে ২০২৪
শিরোনাম :
  রবীন্দ্র সৃজনকলা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ডিজাইনকৃত পোশাক নিয়ে ফ্যাশন প্রদ‍‍র্শনী       গোপালপুরে দারোগার মাথা ফাটানোর ঘটনায় ১৬ জনকে জেলহাজতে প্রেরণ       গোপালপুরে দারোগার মাথা ফাটিয়েছে সন্ত্রাসীরা; গ্রেফতার ১০       গোপালপুরে প্রধানমন্ত্রীর ফেয়ার প্রাইজের চাল কালোবাজারে বিক্রির অভিযোগ       গোপালপুরে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মোমেনের পদত্যাগ       উত্তর টাঙ্গাইল নূরানী মাদরাসার বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান       গোপালপুরে জাতীয় দুর্যোগ প্রস্তুতি দিবস উদযাপন       গোপালপুরে নানা আয়োজনে আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিত       গোপালপুরে পৃথক সড়ক দূর্ঘটনায় শিশু ও নারী নিহত       গোপালপুরে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে নগদ অর্থ প্রদান    
 


জামায়াতে ইসলামীসহ ধর্মভিত্তিক রাজনৈতিক দল নিষিদ্ধের দাবিতে হরতাল সফল করার আহবান

জামায়াতে ইসলামীসহ ধর্মভিত্তিক রাজনৈতিক দল নিষিদ্ধের দাবিতে মঙ্গলবারের সাকাল-সন্ধ্যা হরতাল সফল করতে দেশের অসাম্প্রদায়িক সব মানুষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে সিপিবি ও বাসদ।

সোমবার পুরানা পল্টনে সিপিবি কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এই আহ্বান জানানো হয়।

লিখিত বক্তব্যে সিপিবির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবু জাফর আহমদ বলেন, আমরা দেশবাসীর কাছে ১৮ ডিসেম্বর জাতীয় পতাকা হাতে রাজপথে পিকেটিংয়ের মাধ্যমে শান্তিপূর্ণ হরতাল পালন করে যুদ্ধাপরাধীদের রক্ষার চেষ্টা ও জামায়াতের সহিংস সন্ত্রাসের জবাব দেয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।

তিনি বলেন, কেবল রাজাকাররাই আগামীকালের হরতালে গাড়ি নামাতে ও দোকান খুলতে চেষ্টা করতে পারে। জাতীয় ইস্যুতে ডাকা এই হরতালের সপক্ষে না থেকে পারে না স্বাধীনতাপ্রিয় দেশবাসী।

সহিংসতার পরিবর্তে শান্তিপূর্ণ অবস্থানের মধ্য দিয়ে বামপন্থী দলগুলো হরতাল করবে জানিয়ে সিপিবি ও বাসদ নেতারা বলেন, বুর্জোয় রাজনৈতিক দলগুলো সহিংস নৈরাজ্য ও আতঙ্ক সৃষ্টি করে হরতালের মতো গণসংগ্রামের একটি কার্যকর হাতিয়ার সম্পর্কে মানুষের মনে নেতিবাচক মনোভাব সৃষ্টি করেছে। এই সংস্কৃতি থেকে বেরিয়ে মানুষের সক্রিয় সমর্থনের ভিত্তিতে হরতাল কর্মসূচি সফল করতে হবে।

জামায়াত নিষিদ্ধসহ সাতটি দাবিতে এই হরতাল ডেকেছে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) ও বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ)।

অন্য দাবিগুলো হচ্ছে- যুদ্ধাপরাধীদের বিচার দ্রুত শেষ করা, তাজরীন ফ্যাশনসে অগ্নিকাণ্ডের জন্য দায়ী মালিক পক্ষ ও সরকারি কর্মকর্তাদের গ্রেপ্তার ও শাস্তি দেয়া, গার্মেন্টসহ সব শিল্প-কারখানায় আইন অনুযায়ী কর্মস্থলের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা, শ্রমিকদের ট্রেড ইউনিয়ন অধিকার ও ন্যায্য মজুরি নিশ্চিত করা এবং বিদ্যুৎ বিল, গাড়ি ভাড়াসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম কমানো ও বিশ্ব ব্যাংকের পরামর্শে জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির পাঁয়তারা বন্ধ করা।

সংবাদ সম্মেলনে দাবি করা হয়, সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন, আন্তঃজেলা যানবাহন সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন, ঢাকা জেলা অটোটেম্পু শ্রমিক ইউনিয়ন, ঢাকা জেলা যানবাহন শ্রমিক ইউনিয়ন, সড়ক পরিবহন মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ, ঢাকা জেলা সড়ক পরিবহন সমিতি, ঢাকা জেলা বাস-ট্রাক ওনার্স এসোসিয়েশনের নেতারা বামপন্থীদের দাবির প্রতি পূর্ণ সমর্থন জানিয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, সম্প্রতি কয়েকটি সাম্প্রদায়িক রাজনৈতিক দল অপপ্রচার চালিয়ে ১৮ তারিখের হরতালের বিরুদ্ধে কর্মসূচি ঘোষণা করে মানুষকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে। আমরা স্পষ্ট ও দ্ব্যর্থহীনভাবে বলতে চাই, আমাদের দাবি কোনো ধর্মের বিরুদ্ধে নয়, আমাদের দাবি রাজনীতিতে ধর্মকে ব্যবহারের বিরুদ্ধে।

সংবাদ সম্মেলনে সূচনা বক্তব্য রাখেন বাসদের সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান। উপস্থিত ছিলেন সিপিবির কেন্দ্রীয় নেতা রুহিন হোসেন প্রিন্স,বাসদের কেন্দ্রীয় নেতা রাজেকুজ্জামান রতন, বজলুর রশীদ ফিরোজ, সিপিবি নেতা কাজী সাজ্জাদ জহির চন্দন, আহসান হাবিব লাবলু, অনিরুদ্ধ দাশ অঞ্জন ও বাসদ নেতা খালেকুজ্জামান লিপন।

সিপিবি ও বাসদের পাশাপাশি প্রায় একই দাবিতে মঙ্গলবার হরতাল ডেকেছে গণতান্ত্রিক বাম মোর্চাও।

সোমবার তোপখানা রোডে এক সংবাদ সম্মেলনে মোর্চার নেতারা সংবাদ সম্মেলন তাদের সাত দফা দাবি তুলে ধরে হরতাল সফলের আহ্বান জানান।

তাদের দাবির মধ্যে আছে- জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির ঘোষণা প্রত্যাহার ও বিদ্যুৎ ও গ্যাসের দাম বৃদ্ধি বন্ধ, শ্রমিক হত্যাকাণ্ডের জন্য দায়ী সব মালিক ও কর্মকর্তাদের গ্রেপ্তার করে সব কারখানায় নিরাপদ পরিবেশ নিশ্চিত ও ট্রেড ইউনিয়ন অধিকার নিশ্চিত করা, যুদ্ধাপরাধীদের দ্রুত বিচার নিশ্চিত ও ধর্মের রাজনৈতিক ব্যবহার বন্ধ, বাড়ি ভাড়া বৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণ ও রেল এবং গাড়ি ভাড়া কমানো, দুর্নীতি বন্ধ করে লোপাট করা অর্থ উদ্ধার, সম্পদ পাচারকারী ও দুর্নীতিবাজদের বিচার নিশ্চিত করা, সীমান্তে হত্যাকাণ্ড বন্ধ, রামপাল বিদ্যুত প্রকল্প বাতিল ও এশিয়া এনার্জিকে বহিষ্কার করে ফুলবাড়ি চুক্তি বাস্তবায়ন।

মন্তব্য করুন -


Top
error: Content is protected !!