আজ || শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম :
  গোপালপুরে কোটা বিরোধীদের বিপক্ষে মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতিবাদ       গোপালপুর প্রেসক্লাবে মেধাবী শিক্ষার্থীদের সাথে মতবিনিময়       গোপালপুরে শতাধিক নিষিদ্ধ জাল পুড়িয়ে ধ্বংস       গোপালপুরে বর্নাত্যদের জন্য ফ্রি মেডিক্যাল ক্যাম্প       গোপালপুরে বন্যায় পানীয় জলের সংকট, তবে ক্ষতিগ্রস্তরা পাচ্ছে পর্যাপ্ত ত্রাণ       গোপালপুরে ভূয়া নামজারি ও জাল খতিয়ান তৈরি চক্রের দুই সদস্য আটক       টাঙ্গাইল জেলা সমিতি ঢাকা’র নবনির্বাচিত সভাপতি ইব্রাহীম, সম্পাদক হিরণ       গোপালপুরে বৃত্তি প্রদান ও পুরস্কার বিতরণ       গোপালপুরে বৃক্ষরোপন কর্মসূচী পালন       গোপালপুরে ভূমি সেবা সপ্তাহে কুইজ প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ    
 


বাংলাদেশ প্রতিদিনের সম্পাদক ও প্রতিবেদকের বিরুদ্ধে অভিযোগ

বাংলাদেশ টাইমসঃ একাত্তরের যুদ্ধাপরাধের মামলার রায়ের নির্দিষ্ট তারিখ উল্লেখ করে প্রতিবেদন প্রকাশ করায় বাংলাদেশ প্রতিদিনের সম্পাদক ও প্রতিবেদকের বিরুদ্ধে কেন আদালত অবমাননার অভিযোগে ব্যবস্থা নেয়া হবে না তা জানতে চেয়েছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল।

মঙ্গলবার বিচারপতি ফজলে কবীর নেতৃত্বাধীন ট্রাইব্যুনাল-২ এই আদেশ দেয়।

সোমবার বাংলাদেশ প্রতিদিনে প্রথম পৃষ্ঠায় বিজয় ‘দিবসের আগেই সাঈদীর মামলার রায়’ শিরোনামে প্রকাশিত ওই প্রতিবেদনের প্রতিবেদক আহমেদ আল আমীনকে ৬ ডিসেম্বর ট্রাইব্যুনালে হাজির হয়ে এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে।

তবে পত্রিকাটির সম্পাদক নঈম নিজাম আইনজীবীর মাধ্যমে তার বক্তব্য ট্রাইব্যুনালে পাঠাতে পারবেন।

প্রথম পৃষ্ঠায় প্রকাশিত ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, একাত্তরে গণহত্যা, ধর্ষণ, লুট, অগ্নিসংযোগ, ধর্মান্তরকরণসহ মানবতাবিরোধী অপরাধ বিচারে গঠিত আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে ১৩টি মামলার মধ্যে অভিযুক্ত দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর মামলাটিই বেশি এগিয়ে রয়েছে। সব কিছু ঠিক থাকলে জামায়াতে ইসলামীর এই নায়েবে আমিরের বিরুদ্ধে করা মামলারই রায় হবে সবার আগে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ট্রাইব্যুনাল সংশ্লিষ্টদের মধ্যে গুঞ্জন রয়েছে, ১৩ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবারই সাঈদীর মামলাটির রায় হতে পারে। পরদিন ১৪ ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস। এর একদিন পরই ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবস। বিজয়ের মাসেই অপর অভিযুক্ত গোলাম আযম ও কাদের মোল্লার মামলারও রায় হতে পারে। [টাইমস ডেস্ক ]

মন্তব্য করুন -


Top
error: Content is protected !!